উইন্ডোজ, অফিস ও এডোব প্রোডাক্ট এক্টিভেশন

উইন্ডোজ, মাইক্রোসফট অফিস ও এডোব সবগুলোই পেইড এপ্লিকেশন। তবে এর দাম এত বেশী যে নরমাল বাংলাদেশীদের সাধ্যের বাইরে। এগুলো প্রত্যেকটির দাম প্রায় ১০ হাজারের উপরে। তবে ক্র্যাক ইউজ করে আপনি তা নির্বিঘ্নে ব্যবহার করতে পারবেন।


উইন্ডোজ ও অফিস এক্টিভেশন 

আপনার উইন্ডোজ এক্টিভেট আছে কিনা তা দেখতে My Computer এ গিয়ে রাইট ক্লিক করে Properties এ যান। সবার শেষ লাইনে স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন। আর অফিসে জন্য File এ গিয়ে Account এ গেলেই স্ট্যাটাস দেখাবে। যদি এক্টিভেশন চলে যায় তাহলে উইন্ডোজ এর ওয়ালপেপার কালো হয়ে যাবে এবং অনেক ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন না, আর অফিসের ক্ষেত্রে ওপেন করার সময় নোটিফিকেশন দেখাবে এবং উভয় ক্ষেত্রেই এক্টিভেশন করার জন্য বলবে। আপনি যদি উইন্ডোজ ৭, ৮, ১০ এবং অফিস ২০১০, ২০১৩, ২০১৬ এর প্রো বা এন্টারপ্রাইজ ভার্শন ব্যবহার করে থাকেন তাহলে KMS Pico নামের সফটওয়্যার দিয়ে এক্টিভেশন করতে পারবেন। এই সফটওয়্যারটির সুবিধা হচ্ছে এটা উইন্ডোজ ও অফিস দুইটাই একসাথে এক্টিভেট করে দেয়। সফটওয়্যারটি ওপেন করে নরমালি ইন্সটল করলেই দেখবেন এক্টিভেট হয়ে গেছে।

তবে KMS Pico দিয়ে উইন্ডোজ ৭ এর আল্টিমেট ভার্শন এক্টিভেট করতে পারবেন না। সেটার জন্য আপনাকে Windows Loader নামের সফটওয়্যারটি ইন্সটল করতে হবে। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে আপনি উইন্ডোজ ৭ এর যেকোন ভার্শন এক্টিভেট করতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ওপেন করে ইন্সটল এ ক্লিক করে পিসি রিস্টার্ট চাবে তারপর ওপেন হলেই দেখবেন এক্টিভেট হয়ে গেছে। আপনার উইন্ডোজ এর ভার্শনটি জানতে চাইলে My Computer এ গিয়ে রাইট ক্লিক করে Properties এ দেখতে পারবেন।

তবে আপনার উইন্ডোজটি যদি এই সাইটের আইএসও ফাইল থেকে সেটাপ করা হয়ে থাকে তাহলে আপনার আর চিন্তা নেই, আমি সব প্রো ভার্শন দিয়েছি। ওগুলো ইউজ করলে উইন্ডোজ বা অফিসের এক্টিভেশন বা সিরিয়াল কি নিয়ে কোন ঝামেলা পোহাতে হবে না। উইন্ডোজ ইন্সটল করলেই অটো এক্টিভেট হয়ে যাবে, সেই সাথে অফিস ইন্সটল করলে সেটাও পরে অটো এক্টিভেট হয়ে যাবে।


এডোব এক্টিভেশন

যারা এডোব এর বিভিন্ন প্রোডাক্ট ব্যবহার করেন তারা যদি CS6, CC, CC 2015 এই ভার্শনগুলো এক্টিভেশন নিয়ে ঝামেলায় পড়েন তাহলে Adobe Universal Patcher দিয়ে সহজেই এক্টিভেট করতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ওপেন করে Patch এর ড্রপডাউন মেনু থেকে আপনি যে এডোব প্রোডাক্টটি ইন্সটল করেছেন সেটা সিলেক্ট করুন। CC 2015 বা শুধু CC বা CS6 হলে সেই অনুযায়ী সিলেক্ট করবেন আবার ৬৪ বা ৩২ বিট হলে ঠিক সেভাবেই সিলেক্ট করবেন। যেমন আমি Illustrator CC 2015 64 Bit এক্টিভেট করব তাই সেটা সিলেক্ট করলাম। এরপর নিচে Patch এ ক্লিক করলেই এক্টিভেশন সম্পন্ন হবে।

নতুন আরেকটি প্যাচার রয়েছে যা দিয়ে এডোব ক্লাউড ও এক্টিভেশন চেক অফ করে ভালো ভাবে ব্যাবহার করা যায়। সেটা Adobe AMT Patcher. সফটওয়্যারটি ওপেন করে ড্রপডাউন মেনু থেকে আপনি যে এডোব প্রোডাক্টটি ইন্সটল করেছেন সেটা সিলেক্ট করুন। CC 2015 বা শুধু CC বা CS6 হলে সেই অনুযায়ী সিলেক্ট করবেন আবার ৬৪ বা ৩২ বিট হলে ঠিক সেভাবেই সিলেক্ট করবেন। যেমন আমি Illustrator CC 2015 64 Bit এক্টিভেট করব তাই সেটা সিলেক্ট করলাম। এরপর নিচে Install এ ক্লিক করলে amtlib.dll ফাইল সিলেক্ট করতে বলবে। তাই ইন্সটলেশন ফোল্ডার ব্রাউজ করে amtlib.dll ফাইলটি সিলেক্ট করে Open দিলেই এক্টিভেশন সম্পন্ন হবে।

amtlib.dll যে ফোল্ডারের ভেতর পাবেন তার কয়েকটি কমন লোকেশন হলো…
এক্রোব্যাট C:\Program Files (x86)\Adobe\Acrobat\Acrobat
আফটার ইফেক্টস C:\Program Files\Adobe\Adobe After Effects\Support Files
ড্রিমওয়েভার C:\Program Files\Adobe\Adobe Dreamweaver
ইলাস্ট্রেটর C:\Program Files\Adobe\Adobe Illustrator\Support Files\Contents\Windows
ইনডিজাইন C:\Program Files\Adobe\Adobe Indesign
ফটোশপ C:\Program Files\Adobe\Adobe Photoshop
লাইটরুম C:\Program Files\Adobe\Adobe Lightroom
প্রিমিয়ার প্রো C:\Program Files\Adobe\Adobe Premiere Pro

উল্লেখ্য CC 2015 হচ্ছে সবচে লেটেস্ট ভার্শন তার আগে ছিল CC এবং তার আগে CS6. সেভাবেই আপনার পছন্দমত ভার্শনটি ইন্সটল করবেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s